এভাবে ফিরে আসা ছিল অকল্পনীয় এভাবে ফিরে আসা ছিল অকল্পনীয় – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কমলগঞ্জে পূজা উদযাপন পরিষদের বৃক্ষরোপন কুড়িগ্রামে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের সাথে সংলাপ সুজানগর ইউপি : বন্যার্তদের ২০ লাখ টাকার খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন প্রবাসীরা ইউপি চেয়ারম্যান উপ-নির্বাচন-বড়লেখায় প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় প্রার্থীরা কুলাউড়ায় বন্যা কবলিত এলাকায় শিশু খাবার পানি বিশুদ্ধকরণ টেবলেট ও খাবার স্যালাইন বিতরণ কুলাউড়ায় আশ্রয়ন প্রকল্পে ঘর বরাদ্দের নামে অসহায় মহিলার ভিক্ষার টাকা আত্মসাত! ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি দাতা কুলাউড়ার সোহাগ গ্রেফতার! ওসমানীনগরে শতাধিক শিক্ষার্থী পেল স্কুল ড্রেস বার্সেলোনায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে বাংলার মেলা আয়োজক সংঠনের মতবিনিময় কুলাউড়া পৌরসভার ৬৯ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

এভাবে ফিরে আসা ছিল অকল্পনীয়

  • বুধবার, ৯ মার্চ, ২০২২

নিউজ ডেস্ক:ইউক্রেনে জাহাজে আটকেপড়া ২৮ নাবিক দেশে ফিরেছেন। বুধবার দুপুর ১২টায় তাদের বহনকারী টার্কিশ এয়ারলাইন্সের টিকে-৭২২ ফ্লাইটটি রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে। রোমানিয়ার রাজধানী বুখারেস্ট থেকে নাবিকদের ফ্লাইটটি ইস্তাম্বুল-দুবাই হয়ে বুধবার ঢাকা অবতরণ করে। তাদের জন্য বাইরে অপেক্ষায় ছিলেন পরিবারের সদস্য, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের কর্মকর্তা এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা। শতাধিক সংবাদকর্মীও ছিলেন বিমানবন্দরে।

জাহাজে হামলার ঘটনায় মারা যাওয়া থার্ড ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মাদ হাদিসুর রহমানের লাশ ইউক্রেনের একটি বাংকারের ফ্রিজারে রাখা হয়েছে। সুবিধাজনক সময়ে লাশটি দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

জীবনশঙ্কা থেকে দেশে ফিরে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন ২৮ নাবিক। ঢাকায় বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে গেটের সামনে অপেক্ষমান সাংবাদিকদের তারা বলেন, এভাবে এত দ্রুতসময়ে দেশে ফিরতে পারব ভাবিনি। দ্রুততম সময়ে সবাইকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান তারা।

সহকর্মীদের নিয়ে দেশে ফিরতে পেরে বাংলার সমৃদ্ধি জাহাজের মাস্টার জি এম নূর ই আলম স্বস্তি প্রকাশ করে বলেন, এত দ্রুত সুস্থভাবে সবার ফেরা সম্ভব হবে- সেটা আমরা ভাবতেও পারিনি। দ্রুততম সময়ে সবাইকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করায় সরকারপ্রধান থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

জাহাজটির মাস্টার নূর ই আলম বলেন, ‘দেশে সুস্থভাবে ফিরতে পেরে অনেক আনন্দিত। প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট দিকনির্দেশনায় সংশ্লিষ্ট সবার তৎপরতায় নিরাপদে এবং দ্রুততম সময়ে দেশে ফিরতে পেরেছি। আমাদের পরিবার অপেক্ষায় ছিলেন, সবার চেষ্টায় ফিরতে পেরেছি এত অল্প সময়ের মধ্যে।’

রকেট হামলায় সহকর্মী হাদিসুরের মৃত্যু দেখা জাহাজটির মাস্টার আরও বলেন, ‘আমরা আতঙ্কিত ছিলাম। আমাদের সরকার যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছে। আমরা এখানে সুস্থভাবে আসতে পেরেছি, এটাই বড় কথা।’

জাহাজে রকেট হামলা হওয়ার পর বিএসসি, নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয় ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সব সময় যোগাযোগ রাখা হয়েছিল জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। ইউক্রেন থেকে যুদ্ধ চলাকালে সেখান থেকে তাদের বের করে আনার জন্য পোল্যান্ড, অস্ট্রিয়া এবং রোমানিয়ায় বাংলাদেশের দূতাবাসের কর্মীরা যে পরিশ্রম করেছেন, সেজন্য তাদেরও ধন্যবাদ জানান মাস্টার।

মাস্টার বলেন, ‌‘সাধারণত আমার সঙ্গে সরকারের উচ্চপর্যায়ের কারো কথা হয় না, কিন্তু জাহাজে হামলার পর বিভিন্ন সময়ে আমাদের সার্বিক অবস্থা জানতে, আমরা কে কেমন আছি এসব জানতে… আমার সঙ্গে সরকারের কর্মকর্তারা কথা বলেছেন, সাহস দিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় সব কাজ হয়েছে, সবার প্রতি আমি আসলেই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি, এভাবে ফিরতে পারব ভাবি নাই।’

তিনি বলেন, ‘এভাবে ফিরে আসা ছিল অকল্পনীয়। কারণ অনেক বড় বড় দেশ আছে যাদের নাগরিক এখনো দেশে ফিরতে পারেনি। আমাদের ছোট দেশ, কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও ডিপ্লোম্যাটদের (কূটনীতিক) সহযোগিতায় এটি সম্ভব হয়েছে।’

নিজেরা নিরাপদে দেশে ফিরতে পারলেও সহকর্মী হাদিসুর রহমানের লাশ ইউক্রেনে রেখে আসতে হওয়ায় নূর ই আলম দুঃখ প্রকাশ করে তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। পাশাপাশি সরকার ও শিপিং করপোরেশনের কাছে তিনি আবেদন জানান, হাদিসুরের লাশ দ্রুত যেন দেশে আনা হয় এবং তার পরিবারকে যেন উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews