সুনামগঞ্জে স্ত্রীকে নির্যাতন করে ৪ সন্তানসহ তাড়িয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য সুনামগঞ্জে স্ত্রীকে নির্যাতন করে ৪ সন্তানসহ তাড়িয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ০৮:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুড়িগ্রামে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের সাথে সংলাপ সুজানগর ইউপি : বন্যার্তদের ২০ লাখ টাকার খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন প্রবাসীরা ইউপি চেয়ারম্যান উপ-নির্বাচন-বড়লেখায় প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় প্রার্থীরা কুলাউড়ায় বন্যা কবলিত এলাকায় শিশু খাবার পানি বিশুদ্ধকরণ টেবলেট ও খাবার স্যালাইন বিতরণ কুলাউড়ায় আশ্রয়ন প্রকল্পে ঘর বরাদ্দের নামে অসহায় মহিলার ভিক্ষার টাকা আত্মসাত! ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকি দাতা কুলাউড়ার সোহাগ গ্রেফতার! ওসমানীনগরে শতাধিক শিক্ষার্থী পেল স্কুল ড্রেস বার্সেলোনায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে বাংলার মেলা আয়োজক সংঠনের মতবিনিময় কুলাউড়া পৌরসভার ৬৯ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা ওসমানীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভুরিভোজ নিয়ে তোলপাড়!

সুনামগঞ্জে স্ত্রীকে নির্যাতন করে ৪ সন্তানসহ তাড়িয়ে দিলেন পুলিশ সদস্য

  • শুক্রবার, ১৮ মার্চ, ২০২২

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ::

স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতনের পর চার সন্তানসহ বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামী পুলিশের এক এটিএসআই’র বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার বিকালে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের বাদাঘাটের ছড়ারপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্বামীর ঘর থেকে বিতাড়িত হয়ে সন্তানদের নিয়ে ভুক্তোভোগী নারী উপজেলার টেকেরঘাটে তার খালার বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন।

অভিযুক্ত পুলিশের এটিএসআইর নাম শফিকুল ইসলাম। সে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ছড়ারপাড় গ্রামের মৃত কালু ফকিকের ছেলে। বর্তমানে সিলেট জেলা পুলিশ লাইনসে এটিএসআই হিসাবে কর্মরত রয়েছেন শফিকুল।

এদিকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসে ঘটে যাওয়া এমন বর্বর ঘটনা জানাজানির পর এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে এটিএসআই শফিকুল ইসলাম জানান, পারিবারিক কলহের কারণে স্ত্রীকে একটু মারধর করেছেন।

বাড়ি থেকে তাড়ানো প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে স্ত্রী বাড়ি থেকে চলে গেছেন। তবে এর স্বপক্ষে তিনি কোনো প্রমাণাদি উপস্থাপন করতে পারেননি।

ভুক্তোভোগীর ভাই তারেক আজিজ বলেন, বিয়ের বছর ঘুরতে না ঘুরতেই আমার বোনের ওপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করে আসছে কনস্টেবল শফিকুল। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে সিলেট পুলিশ লাইসন থেকে ছুটি নিয়ে বাড়ি আসার পর আমার বোনকে মাটিতে ফেলে বেধড়ক পেটায় শফিকুল। আমার বোন নিয়াতন সইতে না পেরে অজ্ঞান হয়ে গেলে লাঠি দিয়ে দু’পায়ের তলায় ফের পিটিয়ে জখম করে। তাকে পিটিয়ে চোখ ও শরীর রক্তাক্ত করে শফিকুল। এরপর আইনি জঠিলতা এড়াতে গোপনে আমার বোনকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করায়।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার বিকালে তাহিরপুরের ছড়ারপাড় গ্রামের বাড়ি থেকে আমার বোনকে চার সন্তানসহ বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন ভগ্নিপতি এটিএসআই শফিকুল।স্বজনদের সঙ্গে যেন যোগাযোগ না করতে পারে, সেজন্য তার মোবাইল ফোনটিও কেড়ে নেন শফিকুল ও তার মা। অতীতে এসব নির্যাতনের বিষয়ে সোচ্চার হলে মিথ্যা মামলায় হয়রানি করার হুমকি দিয়েছেন শফিকুল ইসলাম।বোনকে তালাকের হুমকি দিয়ে বেড়ান শফিকুল।

অভিযোগ রয়েছে, এটিএসআই শফিকুল জুয়া ও পরকীয়ায় আসক্ত । যে কারণে গত কয়েক বছরে সিলেট মহানগরীতে কমপক্ষে ২০বার ভাড়া বাসা বদলাতে হয়েছে তার।

জানা গেছে, এটিএসআই শফিকুলের এক সহোদর ভাই একটি হত্যা মামলায় সাজাভোগ করেছেন। অপর সহোদর ছোট ভাই আশিক এক মোটরসাইকেল চালককে হত্যার মামলায় জেল হাজতে রয়েছেন।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews