বড়লেখার ছিদ্দেক আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের চার অভিভাবক সদস্যের নির্বাচন বর্জন বড়লেখার ছিদ্দেক আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের চার অভিভাবক সদস্যের নির্বাচন বর্জন – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখায় সূচনা উপকারভোগীদের অনুশীলন সমূহ প্রদর্শণ ও মতবিনিময় বড়লেখায় শিক্ষক হত্যা ও হেনস্তার প্রতিবাদে মানববন্ধন বড়লেখায় বন্যার্তদের সাথে ‘পদক্ষেপ মানবিক কেন্দ্রে’র অমানবিক আচরণ! দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে পুলিশ -ডিআইজি মফিজ উদ্দিন কমলগঞ্জে দুর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ে ছাই মূ্ল্যবান কাগজপত্র, আহত-২ বড়লেখা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওয়ার্ড বয়কে মারধর, আটক ১ জুড়ীর বন্যার্তদের বৃহত্তর কচুরগুল সমাজ কল্যাণ তহবিলের ত্রাণ বিতরণ শ্রীমঙ্গলে ডেকে নিয়ে গলা কেটে হত্যা বড়লেখায় বন্যাদুর্গতদের খাসি ইয়ুথ ক্লাবের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ আত্রাইয়ে ক্যান্সার ও হৃদরোগীকে অর্থ প্রদান

বড়লেখার ছিদ্দেক আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের চার অভিভাবক সদস্যের নির্বাচন বর্জন

  • রবিবার, ৮ মে, ২০২২

এইবেলা ডেস্ক ::

বড়লেখা উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের ছিদ্দেক আলী উচ্চ বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন নিয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রধান শিক্ষক কর্তৃক তার মনোনীত প্রার্থীকে জয়লাভ করানোর অসৎ উদ্দেশ্য, অনিয়ম-দুর্নীতি ও নৈরাজ্য সৃষ্টির অভিযোগ এনে ০৯ মে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন বর্জনের পাশাপাশি নির্বাচন স্থগিতের দাবী জানিয়ে ৪ জন অভিভাবক সদস্য প্রার্থী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও প্রিসাইডিং অফিসার বরাবরে লিখিত আবেদন করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ছিদ্দেক আলী উচ্চ বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন-২০২২ উপলক্ষে তফসিল ঘোষণার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে (০৫.৪৬.৫৮১৪.০০০.৩৯.০২২.২০.৩০৬ স্মারকে গত ২৪ মার্চ চিঠি ইস্যু করা হয়। তফসিল ঘোষণার পর অভিভাবক সদস্য সামছুল হক, মনসুর আহমদ, মো: হোসেন, হাফছা বেগম বৈধ প্রার্থী হিসাবে মনোনয়নপত্র জমা প্রদান করেন। এছাড়া নির্বাচনী আইন ও শর্তাবলী এবং যাবতীয় ফিস জমা দিয়ে প্রচারণা চালিয়ে আসছিলেন। কিন্তু নির্বাচনী প্রচারণার সময় অভিভাবকদের কাছে যাবার পর তারা জানতে পারেন যে, সক্রিয় ভোটারগণের তালিকা থেকে তাদের নাম বাদ দেয়া হয়েছে। এমনকি ২০ জন ছাত্রছাত্রীর অভিভাবকের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়নি। সর্বোপরি প্রবাসী অধ্যূষিত এলাকা হওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীর পিতা প্রবাসে থাকেন। নিয়ম অনুযায়ী এসব শিক্ষার্থীদের মাতা অভিভাবক হওয়ার কথা। প্রবাসী অভিভাবকের সংখ্যা ৩০ জন। কিন্তু প্রধান শিক্ষক উদ্দেশ্যমূলকভাবে প্রবাসী পিতাদের নাম অভিভাবক তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছেন। এজন্য ভোটার তালিকা সংশোধনের জন্য তারা প্রধান শিক্ষককে একাধিকবার অনুরোধ জানান। বিদ্যালয়ে অনেকেই তালিকাভুক্ত দাতা সদস্য রয়েছেন। তবুও প্রধান শিক্ষক কাউকে না জানিয়ে বিধি-বহির্ভূতভাবে তার মনোনীত ব্যক্তিকে দাতা সদস্য নির্বাচিত করেন। ইতোপূর্বে ওই অভিভাবক সদস্যবৃন্দ এসব অনিয়মের বিষয়ে বারবার প্রধান শিক্ষককে জানান। বিষয়টি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও প্রিসাইডিং অফিসারকে লিখিতভাবে জানানো হয়। রহস্যজনক কারণে ভোটার তালিকা সংশোধনের কোনো ব্যবস্থা না হওয়ায় নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে সন্দেহ দেখা দেয়। এছাড়া তাদের অন্তত ৬০টি ভোট তালিকার বাইরে রয়েছে। নিয়মিত অভিভাবকদের ভোটার তালিকার বাইরে রেখে নির্বাচনে অংশ না নিয়ে তারা বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন। তাই তারা ০৯ মে’র পাতানো নির্বাচন স্থগিত ও সঠিক তদন্তের মাধ্যমে ভোটার তালিকা প্রণয়ন এবং পুন:তফসিলের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও প্রিসাইডিং অফিসার এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাওলাদার আজিজুল ইসলাম জানান, তফশিল অনুযায়ী বিদ্যালয়ের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews