কমলগঞ্জের শমশেরনগরে মাংস ও মাছ বিক্রেতার দ্বন্ধ : ৩ ঘন্টা মাছ বিক্রি ছিলো বন্ধ কমলগঞ্জের শমশেরনগরে মাংস ও মাছ বিক্রেতার দ্বন্ধ : ৩ ঘন্টা মাছ বিক্রি ছিলো বন্ধ – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৭:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বড়লেখা জামেয়া দাখিল মাদ্রাসার নির্মাণাধীন ভবনের নিচ ভরাটে বালুর পরিবর্তে মাটি মৌলভীবাজার পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত কাউকে বাদ দিয়ে নয় জোটের বিভাগীয় সমন্বয় কমিটি গঠন বড়লেখায় নবীন এগ্রো ফুডের ব্রাঞ্চ অফিস উদ্বোধন ও বর্ষপূর্তিতে দোয়া ওয়ার্কার্স পার্টির ঢাকা বিভাগীয় সমাবেশ সফল করার আহবান কমরেড মেননের আত্রাইয়ে শেখ রাসেল কম্পিউটার ল্যাবের ১৩টি ল্যাপটপ চুরি কমলগঞ্জে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে বিদ্যা দেবীর আরাধনা নিয়োগ বাণিজ্য কমলগঞ্জে শিক্ষক নিয়োগের ফলাফর ৩ মাসেও প্রকাশ হয়নি কুলাউড়া প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের কম্বল বিতরণ করেন প্রটোকল অফিসার রাজু ভাতিজির বাল্য বিবাহে বাঁধা দেওয়ায় কাল হলো চাচার পরিবারের 

কমলগঞ্জের শমশেরনগরে মাংস ও মাছ বিক্রেতার দ্বন্ধ : ৩ ঘন্টা মাছ বিক্রি ছিলো বন্ধ

  • শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২২

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর বাজারে মাংস ও মাছ বিক্রেতার দ্বন্ধে শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সকালে ৩ ঘন্টা ধর্মঘট করে মাছ বিক্রি বন্ধ রেখেছিলেন মাছ বিক্রেতারা। জন দুর্ভোগের কারণে ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে শীঘ্রই সামাজিক বৈঠকে সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দিলে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে মাছ বিক্রি শুরু হয়।

শমশেরনগর বণিক কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান মোশাহিদ জানান, গত কয়েকদিন ধরে মাছ বাজার এলাকায় মাংস ব্যবসায়ী লুন্দুর মিয়ার সাথে এ বাজারের মাছ বিক্রেতাদের বিরোধ চলছিল। এ বিরোধে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে আকস্মিকভাবে মাছ বিক্রি বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা। ফলে সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার বাজারে মাছ কিনতে এসে দুর্ভোগের শিকার হন ক্রেতারা। ঘটনার খবর পেয়ে বেলা ১২টায় শমশেরনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জুয়েল আহমদ সরেজমিন এসে উভয় পক্ষকে নিয়ে বসে শীঘ্রই একটি সামাজিক বৈঠক করে এ সমস্যার সমাধান করে দেওয়ার আশ্বাস দিলে বেলা ১২টার পর মাছ বিক্রেতারা মাছ বিক্রি শুরু করেন।

শমশেরনগর বাজারের মাছের আড়ৎদার আব্দুল বারী বলেন, মাছের বাজারের সাথে রয়েছে মাংসের দোকান। তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে মাংস ব্যবসায়ী লুন্দুর মিয়া প্রায়ই মাছ বিক্রেতাদের গালি গালাজ করেন। এমনকি মারমুখী আচরণ করেন। এর প্রতিবাদে শুক্রবার এ বাজারের সকল মাছ বিক্রেতা এক হয়ে ৩ ঘন্টা মাছ বিক্রি বন্ধ রেখেছিল। পরে ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের আশ^াসে জন দুর্ভোগ বিবেচনা করে বেলা ১২টার পর ধর্মঘট প্রত্যাহার মাছ বিক্রি শুরু করেন।

এ সম্পর্কে মাংস ব্যবসায়ী লুন্দুর মিয়া বলেন, মাছ বিক্রেতাদের অভিযোগ সঠিক নয়। বরং তাদের আচরনে তিনি অতিষ্ট।

শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুয়েল আহমেদ মাছ বিক্রেতাদের ৩ ঘন্টার ধর্মঘটের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খুব শীঘ্রই উভয় পক্ষকে নিয়ে বৈঠক করে এ বিরোধের নিষ্পত্তি করবেন তিনি।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews