শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তীব্র জনবল সংকট ও তহবিলের ঘাটতির কারণে স্বাস্থ্য সেবা ও এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ব্যাহত হচ্ছে শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তীব্র জনবল সংকট ও তহবিলের ঘাটতির কারণে স্বাস্থ্য সেবা ও এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ব্যাহত হচ্ছে – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়ায় লক্ষাধিক মানুষ পানি বন্দি, বাড়ছে পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ! দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বে বাংলাদেশ রোলমডেল : দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী হাকালুকি হাওরপারে বন্যার অবণতি-বড়লেখায় ২৫২ গ্রাম প্লাবিত, আশ্রয় কেন্দ্রে ২২০ পরিবার, লাখো মানুষ পানিবন্দি মৌলভীবাজারে বন্যা কবলিত ৪৩২ গ্রাম, পানিবন্দি প্রায় ২ লাখ মানুষ সবার সমন্বয়ে বন্যা মোকাবেলা করতে হবে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী বড়লেখায় ৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী, আশ্রয় কেন্দ্রে আসা শুরু দুর্গতদের ফের সিলেটের পর্যটন কেন্দ্রগুলো বন্ধ ঘোষণা যৌতুকের দাবীতে বড়লেখায় ফ্রান্স প্রবাসীর স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দিল শ্বশুর-ভাসুর আবারও সিলেট নগর পানির নিচে, ঈদ পালনে ভোগান্তি কুলাউড়ার জয়চন্ডীতে পঞ্চায়েত প্রধানের উপর হামলা: ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

শ্রীমঙ্গল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তীব্র জনবল সংকট ও তহবিলের ঘাটতির কারণে স্বাস্থ্য সেবা ও এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ব্যাহত হচ্ছে

  • শনিবার, ৪ মে, ২০২৪

সৈয়দ ছায়েদ আহমেদ, শ্রীমঙ্গল :: তীব্র জনবল সংকট ও তহবিলের ঘাটতির কারণে প্রতিনিয়তই স্বাস্থ্য সেবা ও এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ব্যাহত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী। মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-টিআইবি, শ্রীমঙ্গলের সাথে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ডা. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী আরও বলেন, চা-বাগান অধ্যুষিত শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ প্রতিদিন ইনডোর ও আউটডোরে রোগীর চাপ অনেক বেশী কিন্তু সে তুলনায় হাসপাতালের ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য স্টাফের সংখ্যা অনেক কম। এখানে একজন ডাক্তার আউটডোরে প্রতিদিন প্রায় ১০০ থেকে ১২০ জন রোগীকে সেবা দিতে হয় যা উন্নত স্বাস্থ্য সেবার অন্তরায়। তাছাড়া সেবাগ্রহীতাদের অসচেতনতা ও অসহযোগিতা হাসপাতালের স্বাভাবিক সেবা প্রদান ব্যবস্থাকে বাধাগ্রস্থ করছে। তিনি বলেন, হাসপাতালের এম্বুলেন্স সার্ভিসের জন্য প্রতি বছর যে ফান্ড দেওয়া হয় তা মাত্র তিন মাসে খরচের যোগান দেয়। উপজেলা হাসপাতালের এত সীমাবদ্ধতা থাকার পরেও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-টিআইবি, শ্রীমঙ্গলের বিভিন্ন সহায়ক পদক্ষেপ এবং হাসপাতালের অভ্যন্তরীন ব্যবস্থাপনায় আমরা স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করে যাচ্ছি।

টিআইবি’র এরিয়া কো-অর্ডিনেটর মো: আবু বকর এর সঞ্চালনায় উক্ত সভায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন, হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. সূচীশ্রী সাহা।

বিগত ৬ মাসে সনাকের স্বাস্থ্য বিষয়ক এসিজি’র মাধ্যমে হাসপাতালের সেবাপ্রদান ব্যবস্থায় চিহ্নিত সমস্যাসমূহ উপস্থাপন করেন সনাকের স্বাস্থ্য বিষয়ক উপ-কমিটির আহবায়ক শাহ আরিফ আলী নাসিম। উক্ত সমস্যাগুলো হলো, হাসপাতালের ডাক্তার-নার্সদের ডিউটি রোস্টার, ঔষধের তালিকাসহ বিভিন্ন তথ্যের অপ্রতুৃলতা, আউটডোরে রোগীদেরকে কম সময় দেওয়া ও হাসপাতালের স্টাফ-নার্সদের কর্তৃক রোগীদের সাথে খারাপ আচরণ।

সভায় অন্যানদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, টিআইবি-প্যাকটা প্রকল্পের দাতা সংস্থাসমূহের অন্যতম স্ইুডিস ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট কো-অপারেশন এজেন্সি (সিডা)’র সেকেন্ড সেক্রেটারী পাওলা ক্যাস্ট্রো নেডারস্টাম, ইন্টার্ন ইশা হাল্টারস্টর্ম, সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-টিআইবি, শ্রীমঙ্গলের সহ:সভাপতি এডভোকেট আলাউদ্দিন আহমেদ ও গীতা গোস্বামী, সনাক সদস্য এস.এ হামিদ, মো: সুহেল মাহমুদ, টিআইবি’র সিভিক এনগেজমেন্ট বিভাগের পরিচালক ফারহানা ফেরদৌস, সমন্বয়কারী মো: আতিকুর রহমান, সিলেট ক্লাস্টার সমন্বয়কারী মো: আরিফুল ইসলাম, সনাকের ইয়েস ও এসিজি গ্রæপের সদস্যবৃন্দ।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews