- কৃষি, মৌলভীবাজার, স্লাইডার

কমলগঞ্জে ছড়ার মুখের বাঁধ কেটে বোরো আবাদ নিশ্চিত : কৃষকের মুখে হাসি

এইবেলা, কমলগঞ্জ, ১৯ জানুয়ারি :: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের কুরমা মহালের বাঁশ স্থানান্তরের সুবিধার্থে পাহাড়ি ডালুয়া ছড়ার উৎসমুখের বাঁধ কেটে দিয়ে বন্ধ করে ছড়ার পানি সরবরাহ নিশ্চিত করেছেন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সফিকুল ইসলাম।

কুরমা মহালের বাঁশ শ্রীমঙ্গলের মহালদার কিবরিয়া ইজারা গ্রহন করে ইজারাকৃত বাঁশ স্থানান্তরের সুবিধার্তে ডালুয়া ছড়ার উৎস মুখে স্থায়ীভাবে বাঁধ দিয়ে ছড়ায় পানি সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছিলেন। এ বাঁধ থাকায় উজান থেকে পানি সরবরাহ না থাকায় ছড়া শুকিয়ে মৃত্যু মুখে পতিত হচ্ছে। অন্যদিকে সেচ সুবিধার অভাবে চলতি মৌসুমে ইসলামপুর ও আদমপুর ইউনিয়নের বারোটি গ্রামের কৃষকদের বোরো আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিলো।

kamalgonj Pic

উপজেলার সীমান্তবর্তী কুরমা মহালের মুলি বাঁশ কেটে নিম্নাঞ্চলে স্থানান্তরের সুবিধার্থে পাহাড়ি টিলার আন্ডু নামক একটি লেকে পানি জলাবদ্ধ রাখা হয়েছে। এই লেক থেকেই পাহাড়ি ডালুয়া ছড়ার উৎপত্তি হয়েছে। উজান থেকে নেমে আসা পানি ডালুয়া ছড়া দিয়ে ইসলামপুর ও আদমপুর ইউনিয়নের প্রায় ১৫টি গ্রামের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। ফি-বছর শুষ্ক মৌসুমে ছড়ার পানি দিয়ে এসব গ্রামের কৃষকরা সেচ সুবিধা নিয়ে বোরো ও সবজি আবাদ করেন।বিকল্প হিসাবে ওই স্থানের পাহাড়ি টিলা কেটে ড্রেন তৈরি করে ইছা ছড়া নামক একটি ছোট নালা দিয়ে পানির সাথে বাঁশ ছাড়া হচ্ছে। ফলে পানি শুন্য পাহাড়ি ওই ডালুয়া ছড়াটি মৃত্যু মুখে পতিত হচ্ছে।

Kamalgonj d Pic-5

এই ছড়া থেকে সেচ সুবিধা নিয়ে আদমপুর ও ইসলামপুর ইউনিয়নের মধ্যভাগ, খারগাঁও, উত্তরভাগ, নইনারপার, নোয়াগাঁও, দক্ষিণ কাঠালকান্দি, কালারায়ের বিল, ছয়ঘরি, পূর্বজালালপুর, আদকানি, বনগাও, জালালপুর গ্রামের কৃষকরা বোরো আবাদ করে থাকেন। কিন্তু ছড়ায় পানি না থাকার কারনে এ বছর তাদের বোরো আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ফলে বিপর্যস্ত হচ্ছে এখানকার কৃষি ও জলজ জীববৈচিত্র্য।  ডালুয়া ছড়ার পানি ব্যবহার করে প্রতি বছর বোরো চাষাবাদ করা হয়।

কিন্তু ছড়ার উৎস মুখে বাঁধ দেয়ার কারনে ছড়ায় পানি পাওয়া যাচ্ছিলো না । পানি না থাকায় জমি তৈরি করা যাচ্ছে না, চাষাবাদ সম্পূর্ণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিলো। এ বাঁধ অপসারন করায় ডালুয়াছড়া তীরবর্তী বারোটি গ্রামের সহস্রাধিক একর জমিতে বোরো চাষ নিশ্চিত হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। সোমবার (১৮ জানুয়ারি) কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সফিকুল ইসলাম ডালুয়াছড়ার উৎসমুখের বাঁধ অপসারনের সত্যতা স্বীকার করেছেন।
রিপোর্ট- প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *