- লাইফ স্টাইল

গরমে যে পাঁচটি ফলের রস খাবেন

এইবেলা, ২৬ এপ্রিল: গরমে দেহকে তরতাজা করার জন্য এক গ্লাস সুস্বাদু ফলের রসের চেয়ে ভালো আর কিছুই হতে পারে না। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া দিয়েছে পাঁচটি ফলের পরামর্শ, যা শরীরের পিপাসা মেটানোর পাশাপাশি পুষ্টির চাহিদাও পূরণ করবে।

১. আনারস: আনারসে রয়েছে ব্রমেলিয়ান এনজাইম; এটি চর্বি ও প্রোটিনকে হজম করতে সাহায্য করে। এর মধ্যে রয়েছে অনেক উচ্চমাত্রার ভিটামিন এবং মিনারেল : ভিটামিন-এ, সি, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও পটাশিয়াম। এসব উপাদান ঠান্ডাজনিত কারণে রোগ প্রতিরোধ করে এবং হাড়কে ভালো রাখে। এই ফল দাঁত ও মাড়িকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।

২. তরমুজ: গরমের এই সময়টায় তরমুজ বেশ সহজলভ্য। এই রসালো ফলটি দেহের জন্যও খুব উপকারী। এর মধ্যে রয়েছে লাইকোপিন, যা সূর্যের কারণে ত্বকের কোষের যে ক্ষতি হয়, সেটি থেকে রক্ষা করে। এর মধ্যে পটাশিয়াম, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ক্যারোটিনয়েডস, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-বি৬, ভিটামিন-সি, ক্যালসিয়াম ও ফাইবার রয়েছে প্রচুর। প্রতিদিন তরমুজের একটি ছোট টুকরো খেলে চুল পড়া হ্রাস পায়। হজমের সমস্যা এবং হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধেও কাজ করে তরমুজ।

৩. কচি নারকেল : কচি নারকেলের পানি পান করতে হয়তো অতটা মজা নয়, তবে স্বাস্থ্যের জন্য এমন উপকারী ফল আর নেই। এটি কেবল গরমে আপনার পিপাসাই মেটাবে না, শরীরে ভিটামিন, মিনারেল ও ইলেকট্রোলাইটের চাহিদা পূরণ করবে। এটি শরীরকে ঠান্ডা রেখে অন্ত্রের সমস্যা দূর করে এবং প্রস্রাবের সংক্রমণ কমায়। এই পানি কিডনির সমস্যা এবং মূত্রনালির পাথররোধে বেশ কার্যকর।

৪. আম: গ্রীষ্মকাল আসবে আর আমের রস খাবেন না, তা কি হয়! আমে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা কোলন, ব্রেস্ট ও প্রোস্টেট ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। এই ফল রক্তে বাজে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। ত্বক পরিষ্কার রাখে এবং চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখে।

৫. স্ট্রবেরি: ছোট্ট এই ফলে রয়েছে ভিটামিন, প্রোটিন, সাইট্রিক এসিড আয়রন এবং ফসফরাস। এটি প্রস্রাবের সমস্যায় বেশ কাজ করে, দেহের পরিপাক ভালো রাখে, কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে এটি খাওয়া ভালো। কেননা, ভ্রূণের বৃদ্ধিতে স্ট্রবেরি বেশ কার্যকর। এই গরমে স্ট্রবেরির রসও পান করতে পারেন।#
সম্পাদনা ও রিপোর্ট: শাকির আহমদ

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *