“আমার ছেলে কবরে, খুনি কেন বাইরে” “আমার ছেলে কবরে, খুনি কেন বাইরে” – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাক্ষাৎ বড়লেখায় হত্যা চেষ্টা মামলার রায়- ইউপি মেম্বারসহ ৩ আসামীর সশ্রম কারাদণ্ড ওসমানীনগরে বঙ্গবন্ধুর ৪৭ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত কুলাউড়ায় ইয়াবা ব্যবসায়ী আটকে এলাকায় আনন্দ মিছিল জাতীয় শোক দিবসে বড়লেখার ১০০ দুস্ত পরিবার পেল বিজিবি’র খাদ্যসামগ্রী কুলাউড়ায় জাতীয় শোক দিবস পালিত ১৯ মাসেও বাস্তবায়ন হয়নি চা শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির চুক্তি বড়লেখায় প্রবাসী ব্যারিস্টার সুমনকে নাগরিক সংবর্ধনা বড়লেখায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল বড়লেখা ফ্রেন্ডস ক্লাব ইউ,কে’র মানবিক সহায়তা, অচ্ছল পরিবারকে ঘর হস্তান্তর

“আমার ছেলে কবরে, খুনি কেন বাইরে”

  • রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০

এইবেলা, সিলেট ::

‘আমার বুকের ধন একমাত্র ছেলেকে কেড়ে নিয়েছে এই ফাঁড়ির সাবেক ইনচার্জ এসআই আকবর ও তার সহযোগীরা। বর্বরোচিতভাবে নির্যাতন করে আমার ছেলেকে হত্যা করেছেন তারা। আমি এ হত্যাকারীদের বিচার চাই। আর না হয়, আমার ছেলেকে মেরেছে, আমাকেও গুলি করে মারা হোক।’

রোববার বেলা ১১টায় সিলেটে বন্দরবাজার ফাঁড়ির সামনে ছেলে হত্যাকারী পলাতক এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে কাফনের কাপড় মাথায় বেঁধে অনশনে এসব কথা বলেন রায়হানের মা সালমা বেগম। তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন আত্মীয়স্বজনসহ আরও অনেকে।

এ সময় নিহত রায়হানের মা সালমা বেগম বলেন, আমার ছেলের হত্যাকারী এসআই আকবরকে না ধরা পর্যন্ত আমি এখানেই অবস্থান করব। এ কর্মসূচি কোনো দলীয় কর্মসূচি নয়; তাই দলমত নির্বিশেষে সবাইকে অংশ নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

সালমা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে এ ফাঁড়িতে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার আজ ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও এসআই আকবরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এ ছাড়া পুলিশ হেফাজতে থাকা আকবরের সহযোগীদেরও গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, এসআই আকবর ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিলে অনেক তথ্য বেরিয়ে আসবে বলেও দাবি রায়হানের মায়ের।

এ ব্যাপারে মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিঞা  বলেন, মিটিংয়ে আছি। শুনছি রায়হানের মা কয়েকজন লোক নিয়ে ফাঁড়ির সামনে অনশনে বসেছেন।

প্রসঙ্গত গত ১১ অক্টোবর সিলেটের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে ধরে নিয়ে টাকার জন্য অমানবিক নির্যাতন করা হয় নগরীর নেহারিপাড়া এলাকার বাসিন্দা রায়হানকে (৩৩)। ভোরে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় রোববার রাতে সিলেট কোতোয়ালি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন নিহত রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews