বড়লেখায় ‘তবারক হোসেইন-শামসুন্নাহার’ গ্রন্থাগারের উদ্বোধন বড়লেখায় ‘তবারক হোসেইন-শামসুন্নাহার’ গ্রন্থাগারের উদ্বোধন – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুলাউড়ায় বন্যার্তদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শেখ হাসিনার উন্নয়নের ছোঁয়া প্রতিটি ঘরে ঘরে স্পর্শ করেছে..এমপি হেলাল দুর্যোগেও পুলিশ মানুষের পাশে থাকবে -ডিআইজি মফিজ উদ্দিন পিপিএম নাগেশ্বরীর কালিগঞ্জ এইচ এ উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ আত্রাইয়ে ঐতিহ্যবাহী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা অনুষ্ঠিত কমলগঞ্জে দরিদ্র জারিয়া বেগমের ভাগ্যে আজও কোন ভাতা জুটেনি কমলগঞ্জে শ্রী শ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উৎসব শুরু বড়লেখায় সীমাহীন দুর্ভোগে বানভাসিরা-ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত কুলাউড়াসহ হাকালুকি তীরের ৩ উপজেলাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করুন- এমএম শাহীন বড়লেখায় সূচনা উপকারভোগীদের অনুশীলন সমূহ প্রদর্শণ ও মতবিনিময়

বড়লেখায় ‘তবারক হোসেইন-শামসুন্নাহার’ গ্রন্থাগারের উদ্বোধন

  • রবিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২২

বড়লেখা প্রতিনিধি ::

বড়লেখা উপজেলার শাহবাজপুর উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজে প্রতিষ্ঠিত ‘তবারক হোসেইন-শামসুন্নাহার’ গ্রন্থাগারের উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় প্রধান অতিথি হিসেবে গ্রন্থাগারের উদ্বোধন করেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন এমপি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, ‘তবারক হোসেইন ও শামসুন্নাহার যে গ্রন্থাগার স্থাপন বর্তমান যুগে তা একটি ভিন্নতর উদ্যোগ। সরকার যে সকল বিদ্যালয় নির্মাণ করে সেখানে একটি লাইব্রেরি থাকে। গ্রন্থাগারিক থাকে। সেটা খাতা-কলমে থাকে। শিক্ষক-ছাত্রছাত্রী কেউ খোঁজ নেয় না। এত বড় গ্রন্থাগার হয়েছে। এটা একটা সূচনা। দেশের উত্তর-পূর্ব সীমানা থেকে যাতে সারা বাংলাদেশে একটা উদাহরণ সৃষ্টি হয়। ছাত্র, যুবকদের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলা যায়। বই পড়ার জাগরণ সৃষ্টির লক্ষ্যেই গ্রন্থাগারটি গড়ে তোলা হয়েছে। জাতীয় পর্যায়ে যাতে অবদান রাখতে পারে। এক্ষেত্রে শিক্ষকদের ভূমিকা রাখতে হবে। লাইব্রেরি হচ্ছে জ্ঞানের ভান্ডার। আমরা শস্য ভান্ডার, অর্থ ভান্ডার খোঁজতে থাকি। বইয়ের ভান্ডার, জ্ঞানের ভান্ডারের খোঁজ করতে হবে। আমি আজকে একটি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জিজ্ঞেস করেছিলাম, কিসে তাদের পড়ালেখার ক্ষতি হয়। তারাই বলেছে ফেসবুক, ইউটিউবে। সব সময় ফেসবুক, ইউটিউব ব্যবহার করলে পড়ায় উন্নতি হবে না। সপ্তাহে একদিন যদি লাইব্রেরিতে যাই, একটি বই নিয়ে পড়ি। তাহলে একাডেমিক জ্ঞানের বাইরে জ্ঞানের পরিধি অনেক বাড়বে।’

শাহবাজপুর উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে জ্যেষ্ঠ শিক্ষক আতিকুল ইসলাম মুক্তা ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী মাহি আবিদের যৌথ সঞ্চালনায় উদ্বোধনী সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান, লেখক ও গবেষক অধ্যাপক ভীষ্মদেব চৌধুরী, মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ লেখক ও গবেষক আবুল ফতেহ ফাত্তাহ, ভ্রমণ লেখক, নাট্যকার ও নির্মাতা শাকুর মজিদ, মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির উপ-রেজিস্ট্রার লেখক ও গবেষক মিহির কান্তি চৌধুরী, গ্রন্থাগারের স্থপতি রাজন দাস, উত্তর শাহবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিক উদ্দীন আহমদ, সাবেক ছাত্র, লেখক ও লোক গবেষক মোস্তফা সেলিম এবং গ্রন্থাগারের প্রতিষ্ঠাতা অ্যাডভোকেট তবারক হোসেইন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আব্দুল বাছিত।

উল্লেখ্য শাহবাজপুর উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের প্রাক্তন কৃতি ছাত্র, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী, বীর মুক্তিযোদ্ধা তবারক হোসেইন ও তার সহধর্মিনী শামসুন্নাহার প্রায় ৭০ লাখ টাকা ব্যায়ে বিদ্যালয়ে গ্রন্থাগার ভবনটি নির্মাণ করে দিয়েছেন।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ - ২০২০
Theme Customized By BreakingNews