এক পাষন্ড মায়ের কাহিনী এক পাষন্ড মায়ের কাহিনী – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন : কুলাউড়ায় চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের ৩ শীর্ষনেতা বোরো ধানের সোনালী শীষে দুলছে কৃষকের স্বপ্ন বড়লেখায় যুব ফোরামের অর্ন্তভূক্তিকরণ সভা রাজারহাটে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের সাথে সংলাপ ওসমানীনগরে বিদ্যুৎপৃষ্টে স্যানেটারী মিস্ত্রির মৃত্যু বড়লেখায় গণশুনানি : গ্রাহক হয়রানীর দায়ে পল্লীবিদ্যুত আজিমগঞ্জ কেন্দ্রের ইনচার্জকে বদলির নির্দেশ কমলগঞ্জে শমশেরনগরে রেললাইনের পাশে অবৈধ পশুর হাট কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যাপক রফিকুর রহমানের সমর্থনে মতবিনিময় কুলাউড়ায় সাংবাদিকদের সাথে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নেহার বেগমের মতবিনিময় বড়লেখায় প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির ঈদ পুর্নমিলনী

এক পাষন্ড মায়ের কাহিনী

  • শুক্রবার, ৪ মার্চ, ২০২২
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ::
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে কন্যা শিশুকে ঘরের দেয়ালে আছড়ে মেরে ফেলেছেন এক মা।
শিশুটির বয়স ৪০ দিন বলে জানান, তার আত্মীয় স্বজন। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (২ মার্চ) উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের সাধু মোড় ব্রহ্মতর গ্রামে।
জানা গেছে, উপজেলার কচাকাটা থানার বলদিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ বলদিয়া (ইসলামাবাদ) গ্রামের আব্দুল লতিফ মাষ্টারের কন্যা জুই খাতুনের সাথে একই ইউনিয়নের কেদার ব্রহ্মতর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের পুত্র সুমন মিয়ার প্রায় ৩ বছর আগে বিয়ে হয়।  তাদের সংসার জীবন চলতে থাকে। প্রায় ৪০দিন পুর্বে জুই খাতুন একটি কন্যা সন্তান প্রসব করে।
সন্তানটির নাম উষা খাতুন। জুই শ্বশুড় বাড়িতে অবস্থানের পর ঘটনার দিন বুধবার(২ মার্চ) তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেখানে রাত সাড়ে ৮ টার সময় ভারসাম্য হারিয়ে জুই খাতুন ঘরের দরজা বন্ধ করে তার শিশু কন্যাকে দেয়ালে আছাড় দেন। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটির মৃত্যু হয়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে ঘাতক মা ও শিশুটির  লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
জুই খাতুনের স্বামী ও শিশুটির বাবা স্বপন মিয়া বলেন, আমার স্ত্রী জুই একজন মানসিক ভারসাম্যহীন রোগী। সে মাঝে মধ্যেই পাগলের মতো আচরন করত। তার চিকিৎসাও চলছে। কিন্তুু বুধবার সন্ধ্যায় হঠাৎ করেই ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়ালে আছাড় দিয়ে শিশুটিকে মেরে ফেলে।
কচাকাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহেদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের  জন্য শিশুটির মা জুইকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।
শিশুটির লাশ ময়না তদন্তের জন্য  মর্গে প্রেরন করা হয়েছে । যেহেতু শিশুটির মা মানসিক ভারসাম্যহীন বলে আমরা এলাকাবাসীর নিকট জানতে পেরেছি। পরিবারের পক্ষ থেকে এখনও কোন মামলা দায়ের করা হয়নি। মামলা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews