কাতারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান কাতারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান – এইবেলা
  1. admin@eibela.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
 মৌলভীবাজারে বহুদলীয় প্লাটফর্ম পিস ফ্যাসিলিটেটর গ্রুপের কমিটি গঠন কমলগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও শিক্ষার্থীদের স্কুল ব্যাগ বিতরণ নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগে ২১ দিন ধরে স্কুলে ঝুলছে তালা বিক্ষোভ ও মানববন্ধন আত্রাইয়ে রাজা-বাদশাকে বের করতে ভাঙতে হবে ঘরের দেয়াল দুখি মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী—-সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার কমলগঞ্জে সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. সিকন্দর আলী স্মরণে নাগরিক শোকসভা অনুষ্ঠিত বড়লেখায় হরিণ হত্যা ও পাচারে চামড়া মজুদ মামলায় দন্ডিত ব্যবসায়ি সাইদুল ভাইসহ কারাগারে জুড়ী পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু : অপর শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক শ্রীমঙ্গলে বহুদলীয় প্লেটফর্ম পিস ফ্যাসিলিটেটর গ্রুপের ত্রিমাসিক পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা কমলগঞ্জে আরডব্লিউডিও ওয়াই মুভস প্রকল্পের প্রকল্প সমাপনী অনুষ্ঠান

কাতারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান

  • বুধবার, ৮ মার্চ, ২০২৩
এম এ সালাম, কাতার প্রতিনিধি :: কাতারে জাতিসংঘের সম্মেলন LDC5 য়ে অংশগ্রহণ করতে বাংলাদেশ থেকে আসা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা দিয়েছে বাংলাদেশ কমিউনিটি কাতার। মঙ্গলবার ৭মার্চ বাংলাদেশ এমএইচএম স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে উক্ত নাগরিক সংবর্ধনা দেয়া হয়।
পবিত্র কোরান থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ নজরুল ইসলাম স্বাগত বক্তব্য রাখার পরই সংবর্ধিত অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ সবার উদ্দেশ্য ভাষন দেন।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রী, সচিব, দূতাবাসের কর্মকর্তা, বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ, বাংলাদেশ এমএইচএম স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংবাদিক, সংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
মঙ্গলবার (৭ মার্চ) রাতে কাতার প্রবাসী বাংলাদেশিদের নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বলেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের মানুষ কষ্ট পাবে এমনটা চাই না। এরজন্য হতদরিদ্র ও যারা কাজের অক্ষম এমন প্রায় ৫০ লাখ মানুষকে বিনা পয়সায় প্রতি মাসে ৩০ কেজি করে চাল দিচ্ছি। এ ছাড়া যারা নিম্নবিত্ত তাদের টিসিবি কার্ডের মাধ্যমে নিত্যপণ্য কেনার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। কার্ড ব্যবহার করে মাত্র ১৫ টাকা কেজি দরে তারা চাল পাচ্ছেন। পাশাপাশি টিসিবির পারিবারিক কার্ডের মাধ্যমে ডাল, তেল, চিনিসহ মাত্র ৩০ টাকা কেজিতে আমরা চাল দিচ্ছি। ভর্তুকি দিয়ে প্রায় এক কোটি মানুষকে এই সেবা দিচ্ছি। আমাদের এত বেশি অর্থ নেই, তবে মনটা বড়। যে কারণে সাধ্যমতো আমরা জনগণের সেবা করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’
আরও বলেন, “প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যেও আমরা উন্নয়নের কাজ অব্যাহত রেখেছি। ৫৬০টি মসজিদ ও ইসলামিক কালচারাল সেন্টার নির্মাণ কাজ চলছে। ইতোমধ্যে প্রায় ১০০টির মতো উদ্বোধন হয়েছে। খেলাধুলার উন্নয়নে প্রতিটি উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম করে দেয়া হচ্ছে। নদীপথের উন্নয়নে ড্রেজিংয়ের কাজ চলছে। রেললাইন সম্প্রসারণ হচ্ছে। বিমান কেনা হয়েছে, নিজেদের বিমানে এখন আমরা বিভিন্ন গন্তব্যে যেতে পারছি। প্রতিটি গ্রামে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিতে ‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ প্রকল্পের কাজ চলছে। এ ছাড়া ‘আমার বাড়ি, আমার খামার’; ‘পুষ্টি বাগান’র মতো প্রকল্পের মাধ্যমে গ্রামের মানুষের উন্নয়নে কাজ চলছে।”
শিক্ষার উন্নয়নে সরকার আন্তরিক জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়নে কাজ চলছে। অনেক মাদ্রাসা এমপিওভুক্ত করেছি। এছাড়া আরবি বিশ্ববিদ্যালয় করা হয়েছে। দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্স ডিগ্রির মর্যাদা দেয়া হয়েছে। ভোকেশনালের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা পড়াশোনার পাশাপাশি যাতে কারিগরি শিক্ষা পায় তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।’
এ সময় প্রবাসীদের জন্য ব্যাংক করে দেয়া হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশে যারা আসেন তাদের জন্য প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় আছে। এ ছাড়া তাদের জন্য একটি ব্যাংকও করে দেয়া হয়েছে। এই ব্যাংকের মাধ্যমে প্রবাসে যারা আসবেন, তারা সহজ শর্তে ঋণ পাবেন। যারা প্রবাসে আসছেন মন্ত্রণালয় তাদের নাম রেজিস্ট্রি করে, কত বেতন পাবেন, কোথায় কাজ হবে তা নিশ্চিত হয়ে স্মার্টকার্ড দিচ্ছে। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলো এরপরেও কিছু মানুষ দালালের খপ্পরে পড়েন। জমি বিক্রি করে, লাখ লাখ টাকা খরচ করে প্রবাসে এসে মানবেতর জীবন যাপন করেন।’ প্রধানমন্ত্রী দালালের মাধ্যমে না এসে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিদেশে আসার আহ্বান জানান। তিনি এ সময় রেমিট্যান্স পাঠানোর জন্য প্রবাসীদের ব্যাংকিং চ্যানেল ব্যবহারের আহ্বান জানান। এর জন্য ব্যাংকিং ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হচ্ছে এবং দূতাবাসও প্রবাসীদের এ কাজে সহায়তা করছে বলে জানান তিনি। শেষে প্রবাসীরা যে সব দেশে আসছেন, সে সব দেশের আইন অনুযায়ী বসবাসের আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
তিনি বলেন, যে দেশে আসছেন, সে দেশের আইন অনুযায়ী চলবেন। আইন মেনে চলবেন। নয়তো আপনার দায়ভার কেউ নেবে না। এরআগে, শনিবার (৪ মার্চ) স্বল্পোন্নত দেশগুলোর বিষয়ে ৫ম জাতিসংঘ সম্মেলনে (LDC5 সম্ভাবনা থেকে সমৃদ্ধি) যোগ দিতে দেশ ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে পৌঁছে কাতার ন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে (কিউএনসিসি) জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠকে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ বন্ধে যত দ্রুত সম্ভব বিশেষ ও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে আহ্বান জানান তিনি। এ ছাড়া রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানে মিয়ানমারের নাগরিকরা যাতে দ্রুত স্বদেশে ফিরে যেতে পারে সেজন্য বিশেষ পদক্ষেপ নেয়ার জন্য জাতিসংঘ মহাসচিবের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। পরে রোববার (৫ মার্চ) কাতারের রাজধানী দোহায় অনুষ্ঠিত এলডিসি সম্মেলনে যোগ দেন তিনি।
বুধবার (৮ মার্চ) পর্যন্ত কাতারে অবস্থানকালে কাতারের আমিরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের কথা রয়েছে। জ্বালানি খাতে সহযোগিতাসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়গুলো আলোচনায় স্থান পাবে।#

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২ - ২০২৪
Theme Customized By BreakingNews