- মৌলভীবাজার, লাইফ স্টাইল

মৌলভীবাজারের সাংবাদিক ও সাহিত্যিক রমাপদ ভট্টাচার্য্য জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছেন

এইবেলা, মৌলভীবাজার  ২৬ জুন :-

RAMA
সাংবাদিক ও সাহিত্যিক রমাপদ ভট্টাচার্য্য বাংলাদেশের মৌলভীবাজার জেলা শহরের একটি পরিচিত নাম। সহায় সম্বলহীন এই সাংবাদিক মৌলভীবাজার শহরের একটি ভাড়া করা বাসায় বসবাস করে আসছেন। তিনি তার মা বাবার একমাত্র পুত্র সন্তান। একজন সৃজনশীল মানুষ হিসেবে তরুণ বয়সেই তার প্রশংসা রয়েছে সর্বত্র। কিন্তু তিনি প্রকৃতি অমোঘ নিয়মে আজ অসহায়। মাত্র ৪৯ বছর বয়সে তার দুটি কিডনী নষ্ট হয়ে গেছে। কিডনী ছাড়াও তিনি হৃদরোগ, লিভার ও উচ্চ রক্তচাপে ভোগছেন। সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসার ডা. হাবিবুর রহমান, একই হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক ডা. শিশির চক্রবর্তী এবং মেডিসিন ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শুভাশিস গুপ্ত এর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ০৫.১১.২০১৪ খ্রি. তারিখে ঢাকাস্থ কিডনী ফাউন্ডেশন হাসপাতাল এন্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা.শামীম আহমদ এর অধীনে চিকিৎসা শুরু  করেন। কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা.শামীম আহমদ বেশ কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও চিকিৎসার পর একটি কিডনী প্রতিস্থাপনের পরামর্শ দেন। রমাপদ ভট্টাচার্য্য সংশ্লিষ্ঠ বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের ব্যবস্থাপত্র দেখিয়ে বলেন, তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয় সুব্রত কুমার ভট্টাচার্য্যের সাথে তার কিডনীর মিল থাকায় তিনি বিনামূল্যে একটি কিডনী দান করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। অপারেশনের মাধ্যমে উনার কিডনী এনে নতুন কিডনী সংস্থাপন (ট্রান্সপ্ল্যান্ট) বাবদ ৭-৮ লক্ষ টাকার প্রয়োজন বলে ডাক্তাররা বলেছেন। কিন্তু এই পরিমাণ টাকা যোগার করার সামর্থ্য তার নেই। জমি জমা যা ছিল তা বিক্রি করে এতদিন চিকিৎসা চালিয়েছেন। এখন তিনি নিঃস্ব অবস্থায় মৃত্যুর প্রহর গুনছেন। এই সমাজের হৃদয়বান মানুষই তার শেষ ভরসা। মানবতায় উজ্জীবিত মানুষরাই পারেন এই মানুষটিকে বাঁচিয়ে তুলতে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় একটি পরিবারের হাসি ফুটতে পারে। তিনি পেতে পারেন নতুন জীবন। তাই নিরুপায় হয়ে সমাজের বিত্তশালীদের কাছে তিনি আর্থিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। এজন্য বড় আশা করে তিনি ব্যাংক এশিয়া লি: মৌলভীবাজার শাখায় (সঞ্চয়ী হিসাব নং: ০৫১৩৪০০১২২৬) এবং সোনালী ব্যাংক লি: মৌলভীবাজার শাখায় (সঞ্চয়ী হিসাব নং: ০০২০৭৮১২৩) দুটি হিসাব খুলেছেন। তার পরিবার সমাজের বিত্তশালীদের সাহায্য ও সহযোগিতার দিকে চেয়ে বসে আছে আছেন। কেউ সরাসরি যোগাযোগ করতে চাইলে মোবাইল নং (অনুরোধে) ০১৮১৯-৫৯২৯৬০ নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।

About eibeleamialabula

Read All Posts By eibeleamialabula

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *